(৩৮)


বহুদিন তুলসী গাছে জল দিই নি তাই কটা ঘটনাকে মিলিয়ে মিশিয়ে ভুণি খিচুড়ি রাঁধার চেষ্টা করছি… নিন্দুকেরাও জানেন যে ওই কাজটা আমি বেশ ভালোই পারি- আর ঢাকের বাদ্যিটাও মন্দ বোল তুলি না।

যাই হোক, কত কি দেখি চোখে কোনোটা মনে থাকে কোনোটা ওয়াইপারের ঘায়ে মুছে যায়। সেদিন যেমন এক পরিচিতের অফিসে গেলাম গাড়ি করে… তা নেড়ির কি ঘি সহ্য হয়? ইমেজ বলে তো একটা বস্তু আছে সযত্নে লালিত… তা আমার ইমেজ হলো ছা পোষা কেরানীর(যদিও অতি নিন্দুকে বলে তৈল মন্ত্রক নাকি আমাদের শীতকালীন ইউনিফর্ম দিয়েছে নীল রঙা স্যুট)। তা কুঁজোরও তো চিৎ হয়ে শুতে ইচ্ছা হয় না কি? দুটি সযত্নে রঞ্জিত স্যুট যদি বদলে বদলে পড়ি তাতে কার পূর্বপুরুষের ইয়ে? যাকগে ধান ভাঙতে পুরো কৈলাসে কেলেঙ্কারি করে তো লাভ নেই, তাই পূর্বকথনে ফেরা যাক।

তা আমি আমার টকটকে লাল গাড়িটা নিয়ে তেনার অফিসের সামনে গিয়ে দাঁড়ালাম… তিনি তো আমায় ইমেজ লালিত কালো মোটর সাইকেলেই দেখেছেন… গাড়ি থাকলেও সেটি গ্যারেজের শোভাবর্ধনেষু বলেই জানেন। তাই শতেক হর্ণ সত্বেও বিশ্বাস করতে পারেন নি যে আমি চারচাকা শোভিত হয়ে আসব। তাই তিনি সামনে পালসার চালককে কাল্পনিক আমি বলে ধরে নিয়ে, “এই, এই” করে ধাবিত হলেন। অকস্মাৎ আক্রমণে ছেলেটি ঘাবড়ে গিয়ে পাঁই পাঁই করে বাইক ছোটালো দিগন্তের উদ্দেশ্যে আর আমাকে বাধ্য হয়ে গাড়ি থেকে নেমে গিয়ে ওনাকে টোকাতে হল, “এই তো আমি, মো কো কাঁহা ঢুন্ডে রে বান্দে…” বলে। তার পর তো হা হা আর হো হো…

আজ অফিস থেকে সময়েই বেড়িয়েছি, তারপর গাড়ি(আজকের গাড়ি মানে কিন্তু আমার asusual বাইক) দাঁড় করেছি লাল সঙ্কেতে দেখলাম- একটা হোন্ডা সিটি থেকে একটি দম্পতি জানলা খুলে সামনের ভিখিরির বাচ্চাটিকে কল কল করে জল ঢেলে দিচ্ছে বোতল থেকে। আর মেয়েটি আশ মিটিয়ে জলপান করে পুণ্যতোয়া করছে ধরতিকে… মনটা বড়ই ভালো হয়ে গেল। মানে আমার মনটা খারাপ কমই থাকে কিন্তু নিজেকে ধন্য বলে মনে করতে শুরু করলাম মানব জনমের জন্য। কত কি তো আছে বেঁচে থাকার জন্য- মরতে চাহি না আমি এ সুন্দর ভুবনে…

একটা ছোট্ট উপসংহার দিয়ে শেষ করি আজকের ফিস ফাস- খেতে বসে ছেলে জিজ্ঞাসা করেছে বসন্ত পঞ্চমী কি সরস্বতী মায়ের জন্মদিন? মা মা গো দেখা দে আর উত্তরটা জানিস যদি… মেল কর।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s